ব্লগার রাজিবের মৃত্যুতে পুলক বোধ করলে আপনারও চিকিৎসা প্রয়োজন

কেউ নাস্তিকতার অ্যাডভোকেসি বা ইসলামের বিরোধীতা করলে যদি তাকে মারা দস্তুর হত, তাহলে মহানবী হযরত মুহম্মদ (সঃ) কিলিং মিশন শুরু করতেন। তিনি তা করেন নাই। অতএব এই ব্লগার রাজিব হায়দারকে যারা মেরেছে, খুনী ছাড়া তাদের আর কোন পরিচয় নাই। একই ভাবে নৃশংস হোমিসাইড ছাড়া রাজিবের মার্ডারের আর কোন সংজ্ঞাও নাই, যেটার বিচার হতে হবে এবং হতে হবে। সেই ‘হতে হবে’-র সাথে কোন ‘কিন্তু যদি’ যোগ করারও সুযোগ নাই।

কিন্তু দেখছি কেউ কেউ ‘এক রাজিব হায়দার শহীদ হয়েছে, লক্ষ রাজিব হায়দার শাহবাগে আছে’ টাইপের শ্লোগানের হল্কা ছড়াচ্ছেন। থাবা বাবা নামে ব্লগিং করা এই রাজিব হায়দারের সাহিত্যকর্মের একটা ছোট অংশ, যেখানে তিনি হযরত মুহম্মদ (সঃ)-এর ঈদ জামায়তের ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যাখ্যা করেছেন, এখানে তুলে দিলাম,

“কাবা প্রাঙ্গনে গিয়া দেখে মোহাম্মক আর তার পিছে সবাই লাইন ধইরা উর্ধপোঁদে পজিশিত। মক্কাবাসীরে মোহাম্মক আগেই বুঝায় রাখছে যে ঐটা হৈল নামাজের সিজদা (সিজদা দ্রষ্টব্য)… তাই তারা আসল কাহিনী ধরতে না পাইরা মনে করলো ইঁটের দিন জামাতে সিজদা দেওন লাগে আর চিল্লায় চিল্লায় ইঁট মুবারক কওন লাগে! সেই থেকে একমাস না খায়া থাইকা পরের দিন উর্ধপোঁদে নামাজ পরা আর ইঁট মুবারক বলার রীতি শুরু হইলো, আর কালক্রমে শব্দ বিচ্চ্যুতির কারনে ইঁট হয়ে গেল ঈদ!”

rajib haidar in shahbagh
শাহবাগে অংশ গ্রহণরত রাজিব হায়দার।

অতএব শাহবাগে যদি লক্ষ রাজিব হায়দার থাকে, তাহলে ব্যাপারটা আসলেই যথেষ্ট দুশ্চিন্তার। আমি আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের কাছে দুআ করি তিনি রাজিব হায়দারের মা-বাবা ভাই বোনকে এই দুঃখের ও কঠিন সময়ে শক্তি দান করুন, রাজিব হায়দারকে ক্ষমা করুন এবং যদি এই দেশে যদি আদৌ লক্ষ লক্ষ রাজিব হায়দার থেকে থাকে, কিংবা যে ক’টাই আছে, তাদেরকে ঠিক রাস্তায় আসার তৌফিক দান করুন; অন্তত পক্ষে বাকিদেরকে এদের আবর্জনা থেকে দূরে রাখুন, নজরে পড়লেও যেন মাথা ঠান্ডা থাকে তার তৌফিক দান করুন।

শুধু বলার ছিল, দয়া করে ধর্মের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা আর ভালোবাসাকে ভুল খাতে যেতে দেবেন না। শুধু এটা মনে রাখুন, রাজিব হায়দার বা থাবা বাবার প্রকাশিত মতামতকে বিরক্তিকর, বিকৃত মস্তিষ্কপ্রসূত ভাবছেন সব ঠিক আছে, কিন্তু তাই বলে তার নৃশংস হত্যাকান্ডর ঘটনায় যদি আপনি পুলকিত হন, তাহলে বিকৃত মস্তিষ্কের দিক থেকে আপনিও কম যান না। ইসলামকে কটূক্তি করছে বলে, যত অশ্লীল ভাষাতেই হোক, তাকে গলা কেটে মেরে ফেলতে হবে, এই যদি হয় আপনার ভাবনা, তাহলে আপনার মানসিকতার সাথে তাদের মানসিকতার গুণগত কোন তফাত নাই যারা ইসলামের কথা বলার অপরাধে হযরত মুহম্মদ (সঃ)-এর দিকে পাথর ছুঁড়ে মেরে তাকে রক্তাক্ত করত।

Advertisements

One thought on “ব্লগার রাজিবের মৃত্যুতে পুলক বোধ করলে আপনারও চিকিৎসা প্রয়োজন

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s